Sunday, January 1, 2017

হতে হবে৤ হতেই হবে




০১/০১/২০১৭ রবিবার

হতে হবে৤ হতেই হবে৥

মনোজকুমার দ. গিরিশ

        বাঙালির ভাষা, সংস্কৃতি, বিনোদন, চিকিৎসা, আর্থিক অবস্থান ইত্যাদি নিয়ে অনেকের মনে নানা ভাবনা আছে৤ সেটা বাস্তবায়নের একটা ইতিবাচক পথ ঠিক করতে হবে৤ আমরা কারও বিরুদ্ধে নই, আমরা আমাদের পক্ষে, নিজেদের জন্য কিছু করার ইতিবাচক চেষ্টা করতে দোষ নেই৤

১৤লেখা-- ফেসবুকে লেখার সময়ে, বা ইমেল পাঠাবার কালে ইংরেজি তথা রোমান হরফে বাংলা লিখব না৤ নেটে কম্পিউটারের জন্য প্রচুর বাংলা ইউনিকোড ফন্ট পাওয়া যায়, আমি একটির হদিস দিতে পারি, যেখানে কিবোর্ড সহ, অন্যান্য প্রয়োজনীয় আলোচনা আছে৤ সেখানে প্রথমে পড়ে নিতে হবে Read me First.txt  তাতে ব্যবহারিক সুবিধা হবে৤লিংক: https://sites.google.com/site/ahanlipi/

২৤পোষাক-- পোষাকে বাঙালি জাতীয়তা রাখতে হবে, তবে তা নিয়ে কট্টর হবার দরকার নেই৤ আগেকার দিনে চলাফেরা ইত্যাদি যেরকম ছিল এখন আর তেমন নেই৤ বাস ট্রাম ট্রেনের ভীড়ে ধুতি পাঞ্জাবি চলে না, প্যান্ট শার্ট চাই৤ মেয়েদেরও শাড়ি ছেড়ে প্যান্ট শার্ট ধরতে হবে৤ তারা চলাফেরার সুবিধার সঙ্গে প্যান্টে শার্টে পকেট পাবে, সেটা খুব দরকার৤ নয়তো মোবাইল, মানিব্যাগ হাতে করে ঘুরতে হয়৤ সামাজিক অনুষ্ঠানে অবশ্য বাঙালি পোষাক পরতে হবে৤

৩৤বিনোদন-- বিনোদন হিসেবে বাংলা গান শুনতে হবে, বাংলা সিনেমা দেখতে হবে৤ বাঙালিরা বাংলা গান, বাংলা সিনেমার পৃষ্ঠপোষণ না করলে অন্যেরা করবে কি? অন্যভাষার সিনেমার অর্ধ-নগ্নতা আমাদের গ্রাস করলে বাংলা ডুবে যাবে৤ আমরা যদি ডুবতে চাই তবে যৌনলাস্যের পিছনে ছুটব৤ মুখে বাংলাভাষাকে ভালোবাসার কথা বলে গোপনে শত্রুতা করলে হবে না৤ বাংলার শিল্পী কলাকুশলীদের জীবিকা না জুটলে তারা বাঁচবেন কেমন করে, বাংলা বাঁচবে কেমন করে? বাংলা প্রসারের তাঁরাই তো উৎসমুখ, প্রতিনিধি৤ ভাষা হল জীবন ও জীবিকার মূল হাতিয়ার, তাই কোনও প্ররোচনাতেই মাতৃভাষাকে হারানো চলে না৤ মাতৃভাষাকে অবহেলা করলে পাবার নেই কিছু, হারাবার জন্য আছে সবই৤

৪৤চিকিৎসা-- প্রেসক্রিপশন ইংরেজিতে হবে, বাকি নির্দেশ লিখতে হবে বাংলায়৤ ইংরেজি প্রেসক্রিপশনে বাংলা লেখা যাবেনা এমন মনোভাব থাকলে চলবে না৤রোগীর সুবিধার জন্য নির্দেশ বাংলাতে লিখতে হবে৤

৫৤অর্থনীতি-- বাঙালিরা টুকটাক ব্যবসা করে, দোকানপাট চলায়, কিন্তু তারা তেমন জাগতে পারে না৤ এই না-পারার পিছনের কারণ হল, আমরা অন্য বাঙালিদের ভাইবোন, কাকাজেঠা, ভাইপোভাইঝি, ছেলেমেয়ে ভাবি না৤ ভাবলে সকলরকম কেনাকাটা বাঙালির দোকান থেকে করতাম৤ নয়তো তাদের প্রতি দ্বেষ প্রকাশ করা হয়, প্রকাশ হয়-- তাদের ভালো চাই না৤ ফলে বাঙালি ব্যবসায়ী বা দোকানদার জাগতে পারে না৤ তারা কি অন্য রাজ্যে গিয়ে ব্যবসা করবে? তাতে সুবিধে হবে না৤ আমাদের মতো অন্যসব রাজ্যের মানুষ আত্মঘাতী নয়৤ সঠিক পৃষ্ঠপোষণ পেলে দশ বছরে বাঙালির আর্থিক অবস্থান পালটে যাবে৤ আমার ভাইয়ের জন্য, আমার বোনের জন্য আমি আন্তরিক উদ্যোগ নেব না? ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’  আমাদের দীন অর্থনীতি!  

৬৤ঐক্য-- এ ব্যাপারে বাঙালির চরম দুর্নাম৤ অন্য বাঙালির মঙ্গল হোক সেটা যদি না চাই, তবে আমার নিজেরও মঙ্গল হবে না, উন্নতি হবে না৤ কারণ অন্যরাও তো কখনও আমার মঙ্গল চাইবে না৤

৭৤বিক্রম-- বাঙালির বিক্রম আছে, তবে তা চূড়ান্ত অবস্থায় না পড়লে প্রকাশ পায় না৤ ক্ষুদিরাম, সূর্য সেন, বাঘা যাতীনেরা এমনিই হননি৤ যে ইংরেজের সাম্রাজ্যে সূর্য অস্ত যেত না, সেই ইংরেজ বাঙালির বিক্রমের সামনে পড়ে কোলকাতা থেকে তাদের ১৩৯ বছরের রাজধানী নিয়ে পালিয়ে গেল দিল্লি৤ আর বাঙালিরা স্বাধীনতার পরেও বিক্রমের সে “অপরাধ” থেকে মুক্ত হয়নি৤ রাজধানী কোলকাতায় আর ফিরে আসেনি৤

৮৤উৎসব অনুষ্ঠান-- বাংলার নববর্ষ নিয়ে আমাদের উৎসাহ প্রায় নেই, অথচ ইংরেজি নববর্ষ তো মহা হুল্লোড়ের দিন! বাঙালির উৎসব অনুষ্ঠানকে পৃষ্ঠপোষণ করতে হবে৤ বাংলাদেশে বাংলা নববর্ষ অতি  বিশাল জাতীয় উৎসব৤ এদেশে সে তুলনায় পুঁটিমাছের আয়োজন৤ আমরা সংস্কৃতির পরাভবে ভুগছি৤ দেশটা স্বাধীন হয়েছে, মনটা স্বাধীন হয়েছে কি? ১৯৭১-এর পরে বাংলাদেশের মানুষ প্রকৃত স্বাধীন হয়েছে, এদিকের আমরা মিইয়ে আছি৤  

৯৤বল ভরসা-- একে অপরের ভরসা হয়ে উঠতে হবে৤ বাঙালি মাত্রেই এক জাতি, এক স্বর, এক সুর৤ হিন্দু, মুসলমান, খ্রিস্টান, বৌদ্ধ নয়, বাঙালি--বাঙালিই৤ একে অন্যের জন্য কাজ করতে হবে-- এক পরিবারের সদস্যের মতো৤ আমরা মুক্তমন ঠিকই, তবে অতি মাত্রায় আন্তর্জাতিকতা দেখিয়ে ডুবতে চাই না৤ আমরা মানুষের জন্য কাজ করব, তবে তার আগে সব সময়ে আপন জাতির জন্য৤

১০৤কোটিপতি সব পরিবার-- বাংলাদেশে বর্তমানে কোটিপতি ১ লক্ষ ১৪ হাজারের বেশি৤ পঃবঙ্গে ক’জন বাঙালি কোটিপতি? সব পরিবার কোটিপতি হোক, দরিদ্র নিরন্ন, আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবার যাতে জেগে ওঠে, তেমন উদ্যোগ আমাদের সকলকে নিতে হবে৤ সেটাই আমাদের মুক্তি৤ ওপাশে হয়েছে এখানেও হবে-- ভরসা রাখিসওরে মনহবেই হবেচাকুরি করে-- চাকরগিরি করে কোনও জাতির অর্থনীতি সবল হতে পারে না৤ ব্যবসাকে ধ্যান-জ্ঞান করতে হবে৤ ব্যবসা শিখতে হবে৤ বিরাট মূলধনই ব্যবসার মূল নয়, চাই ব্যবসায়িক মধুর ব্যবহার৤ সেটাই আসল মূলধন, সেটাই কোটিপতি হবার পথ৤